চান্দুর চ্যালেঞ্জ!

ঈপ্সিতা চৌধুরী বিডি.টুনসম্যাগ.কম অ্যাই শোন, আমার না বই বের হচ্ছে! হাহাহা! তোর বই? তুই যে লিখিস তার আবার বই! কেন? তোর থেকে খারাপ ...

ঈপ্সিতা চৌধুরী
বিডি.টুনসম্যাগ.কম

অ্যাই শোন, আমার না বই বের হচ্ছে!
হাহাহা! তোর বই? তুই যে লিখিস তার আবার বই!
কেন? তোর থেকে খারাপ লিখি না কি?
হু! তাতো অবশ্যই! ওকে! কি বই? বই এর নাম কি? বিষয় কি? কে প্রকাশ করছে?

চান্দুর চ্যালেঞ্জ! মনে নাই তোর?  তোকে না বলেছিলাম এবং দেখিয়েছিলাম! কেমন লাগে দেখ! তোর হেরে যাওয়ার কাহিনী নিয়ে বই বের করছি! একদিকে তুই গর্ব করতে পারিস তোকে নিয়ে বই বের হচ্ছে, অন্যদিকে তোর হেরে যাওয়ার কাহিনী ফাঁস হচ্ছে এই নিয়ে হু হু করতে পারিস! হাহাহা!

মানে? কে তোর বই বের করছে?

অপেক্ষা কর, কালকেই বই এর প্রচারে কিছু অংশ টুনস ম্যাগে আসছে! তবে তার আগে তোকে আর একবার পড়তে দেই বই এর কাহিনী! দেখ - !

**চান্দুর চ্যালেঞ্জ!

** হুট করেই সেদিন একজনের সাথে পরিচয় হয়। যাকে আমি চিনতাম তার বিশেষ এক গুন বা খ্যাতির কারনে। কিন্তু কখনোও পরিচয় বা কথা হয়নি। তাকে আমি এক হোমরা-চোমরা পাবলিক মনে করতাম। কিন্তু পরিচয়ের পর দেখলাম , সে একটা পুচকে ছেলে!এবং আমার থেকে অনেক ছোট! যাইহোক কিছুদিনের মধ্যে তার বাউন্ডুলে স্বভাব এর কথা জানতে পারলাম। উনার স্বভাব হলো, সবার সাথে তুই-তোকারি করা আর মনের সুখে বিড়ি টানা! এরপর একদিন কথা প্রসঙ্গে দুজনেই চ্যালেঞ্জ করলাম- আমি বললাম, তাকে আমি সোবার মানে ভদ্র বাবু বানিয়ে ছাড়বো আর সে বললো সে নাকি আমাকে  দিয়ে তুই/তোকারী করাবে এবং বিড়িতে টান দেওয়ায় ছাড়বে! এরপর সে শুরু করলো আমাকে তুই তুই করে কথা বলা! তার কথা হলো- আপনি বললে পর পর লাগে, তুমি বললে প্রেমিক প্রেমিক লাগে আর তুই বললে আপন লাগে! আর আমার  প্রবলেম হলো আমি রেগে গেলে তুই তুই বলি। এবং আমাকে মানুষ ২/১ দিন আপনি আপনি করে কথা বলে তারপরই তুমি তুমি শুরু করে যেটাতে আমার প্রবল অ্যালার্জি!  এখন কেউ যদি আমাকে তুই তুই করে কথা বলে তাহলে আমার অবস্থাটা হবে কি?  তাও আবার আমার থেকে বয়সে ছোট একজন! রাগে আমার শরীর জ্বলে গেল। যাই হোক এরপর আসলো শর্তের পালা। ওহ আমি তাকে রাগানোর জন্য চান্দু বলে ডাকা শুরু করলাম। আর সে আমাকে বলে চাদনি বানু! আমার মেজাজ আরোও খারাপ হয় । এরপর  আমি  শর্ত দিলাম - আমি হেরে গেলে ওর সামনে কান ধরবো। তবে আমার না ওর কান! ও তো শুনে আরোও ক্ষেপে ফায়ার হয়ে গেলো। বলে,এত্তো  সাহস চাদনি বানুর! আমি রেগে গিয়ে ২/১ বার তুই করে বলেছি। আর তখনই ও আমাকে বলে আমি হেরে গেছি। আমি তখন ওকে আবার বলি, এটা তো আমি রেগে গেলে বলি! এরপর থেকে ঠিক করি আর বলবোনা যেহেতু এটাই চ্যালেঞ্জ। চান্দুর শর্ত হলো- হেরে গেলে সে আমাকে চায়!  আমি বললাম,চান্দু, এটা কি সিনেমা যে নায়ক নায়িকাকে বলছে, হেরে গেলে নায়িকাকে দিতে হবে? আর এটা শুনতেও তো খারাপ লাগে! ও তখন শয়তানি হাসি হেসে বলে, দেখলাম, একটু! তুই ভয় পাইছিস, আমি ভেবেছিলাম তোর নিজের প্রতি আস্থা আছে! আমি বললাম আচ্ছা আগে আমাকে হারান তারপর দেখা যাবে। আর আমি শর্ত দিলাম ও হেরে গেলে আমার এক পরিচিত মোটে আন্টি আছে আমি ওকে তার কাছে নিয়ে যাবো। উনি তাকে যা করতে বলেেবন ওকে তাই করতে হবে। ও রাজী হলো। কারন ও ভেবেিেছলো আমি হেরে যাবো। এরপর ওর সাথে যখন আমি ফোনে কথা বলতাম এবং ফেসবুকে চ্যাট করতাম তখন যদি আমি কিছু খেতাম,  ওকে বলতাম, খাবেন? ও বলতো,  খাওয়ায় দিলে খাবো। আমি বলতাম ওকে, বাম হাত দিয়ে খাওয়ায় দিবো। ও তো ওয়াক ওযাক করে বমি করে ফেলতো। এরপর আমি বলতাম,  আচ্ছা ঠিক আছে ডান হাত দিয়ে খাওয়াবো তবে হাত ধুবো না। এবার ওর অবস্থা আরোও খারাপ! খালি ওয়াক ওয়াক করে! ও নিজেই বলেছে, হাত ধোয়ার ভয়ে ও নাকি ভাত খায়না! স্যন্ডউইচ ,রোল হাবিজাবি খায়!  তাই ওর থেরাপি আমি ওর উপরই প্রয়োগ করি। এভাবে আমাদের কথা চলতে থাকে। শেষ পর্যন্ত একদিন- চান্দু বলে  - “ যাহ্ শালা তুই একটা আপনি” ! আর যায় কোথায়? আমি তাকে ধরে ফেললাম। চান্দু আপনি হেরে গেছেন। ও হার স্বীকার করলো। এবার ওকে আমাদের এখানে আসতে হবে। ও কথা রাখলো। আমাদের এখানে আসলো। আমি ওকে সেই মোটে আন্টির বাসায় নিয়ে গেলাম। আন্টিকে গিয়ে বললাম, আন্টি কেমন আছেন? কিছু করতে হবে নাকি? আন্টির কোন কাজের মানুষ ছিলোনা। একাই থাকতেন। আন্টি বললো, আমার পায়ে খুব ব্যাথা আর কিছু কাপড় ধোওয়ার বাকি আছে। আমি চান্দুকে বললাম, যাও চান্দু , আন্টির পা টিপে দাও এবং তারপর কাপড় গুলি ধুয়ে দাও। চান্দু তো মোটে আন্টিকে দেখেই টাস্কি  খেয়েছে। এইবার এ কথাগুলি শুনে ও বলে, আমি একটু বাথরুম থেকে আসছি , তোকে তিন তালাক! তারপর ওই যে পালালো,  সোজা বাসস্ট্যান্ডে ! আর আমি পেছন পেছন ওকে ডাকতে থাকি--! হেরে গেলি রে!

 ** শোন, বাকিটা পড়তে হলে তোকে বইমেলায় গিয়ে বইটা কিনতে হবে!

ওহ! আমার কাহিনী দিয়ে বই বের করছিস ! যাহ্! তোকে সত্যি তিন তালাক!

আমি মনে মনে হাসতে থাকি! আর বলি টুনস ম্যাগ পড়িস!

** বিঃদ্রঃ পাঠক চুপি চুপি বলি ,আসলে বই-টই কিছুই বের হবে না! বদমাশ বান্দরটাকে একটু দৌড়ের উপর রাখলাম আর কি! তবে টুনস ম্যাগে আপনারা পড়তে পারেন! টুনস ম্যাগ ও তো একটা পত্রিকা বা অনলাইন বই তাই না?

এই বিভাগে আরো আছে

রম্য গল্প 4647175354403040272

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

সঙ্গে থাকুন

জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক

নেটয়ার্ক

  • আঁকা-আঁকি আহ্ববান

    আপনার আঁকা, মজার মজার লেখা, ছবি আঁকার কলা-কৌশল, শিল্পীর জীবনী, প্রবন্ধ, চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা অথবা প্রদর্শনীর সংবাদ টুনস ম্যাগে ছাপাতে চাইলে পাঠিয়ে দিন। আমাদের ইমেইল করুন- bangla@toonsmag.com এই ঠিকানায়।

    সহায়তা করুন

    item