এই ঈদে আপনি যাহা করিবেন!

বিডি.টুনসম্যাগ.কম  দু'দিন পরেই যে পবিত্র ঈদুল আযহা! সে কথা আর নতুন করে বলার কিছুই নেই। প্রত্যেক ঈদ উৎসবের হলেও বেশ কিছু কাজ আমাদের করা...

বিডি.টুনসম্যাগ.কম
 দু'দিন পরেই যে পবিত্র ঈদুল আযহা! সে কথা আর নতুন করে বলার কিছুই নেই। প্রত্যেক ঈদ উৎসবের হলেও বেশ কিছু কাজ আমাদের করা উচিত! টুনস ম্যাগের পাঠকদের জন্য তেমনই কিছু কিছু কাজের বর্ননা করছেন- আরিফ বিন নজরুল

পশুর দাম যুক্ত প্লাকার্ড সঙ্গে রাখুনঃ কোরবানির পশু কিনে নিয়ে বাড়ি ফেরার পথে সব থেকে বেশি বার যে প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হয়, তা হচ্ছে, দাম কতো নিলো? তো সেই প্রশ্নের উত্তর দিতে দিতে যেন আপনার হাপিয়ে না উঠতে হয়, তার জন্যই আমার পক্ষ থেকে এই উত্তম প্রস্তাব, একটি প্লাকার্ডে পশুর দামটি লিখে রাখুন! তখন যেই ব্যাক্তিই দাম জানতে চাইবে, তাকে ঐই প্লাকার্ড টি দেখিয়ে দিন! তাহলেই দেখা যাবে ঝামেলা শেষ! তবে যারা প্লাকার্ডে লেখা দাম টি বুঝতে পারবেন না, তাদের জন্য হলেও কয়েকবার পশুর দাম উল্লেখ করতে হতে পারে।

হেটে হেটেই পশুর হাঠে যাবেন-আসবেনঃ এর দ্বারা মোটেও শুধুমাত্র ডায়াবেটিস রোগীদের বোঝাচ্ছি না। এখানে মূ্লত কোরবানির পশু কিনতে যাওয়ার সময়ে এবং কোরবানির পশু কিনে নিয়ে ফিরে আসার সময়ের কথা বলা হচ্ছে। কেননা কোরবানির পশুকে তো আর বাসে, টেম্পুতে বা রিক্সাতে করে আনতে পারবেন না, বরং পশুটিকে হাটিয়েই তো আনতে হবে তাই না? আর তাই তো বলছি, আপনিও হেটে না হয় একটু অভ্যাস করে নিলেন! যাতে করে ব্যায়ামও হয়ে গেল, আবার পশুটি নিয়েও সহজেই চলে আসতে পারলেন।

কসাই মশাই কেও বুকিং দিতে পারেনঃ কোরবানির ঈদের দিন আরেক যে ঝামেলা লক্ষ করা যায় তা হলো, পশুর গোসত বানানো বা টুকরো টুকরো প্রক্রিয়াযাত করনে কসাই মশাই কে খুব মিস করা হয়! যার ফলে বেশ ভোগান্তির সৃষ্টি হয়। তাই আগে ভাগেই কসাই কে বুকিং দিয়ে রাখুন নতুবা দেখা যাবে কসাই মশাই সিডিউল দিতে পারছেন না। তবে হ্যাঁ, এমন অনেকেই আছেন যারা নিজেরাই গোসত বন্ঠন উপযোগী করতে পারেন। তারা মূলত কসাই মশাইয়ের আওতামুক্ত।

ঈদের দিনে বিজি কাজ ইজিতে করবেনঃ
হ্যাঁ ঠিক তাই, ঈদের দিনে বিজি কাজ ইজিতে করার চেস্টা করবেন। যেমন- ঈদগাহতে ঈদের নামাজ পড়তে যাওয়া, ঈদ সেলামি গ্রহন অথবা প্রদান করা, কোরবানির পশু কাটাকাটি করা, কোরবানির গোসত বন্ঠন করা, ইত্যাদি রকমের কাজ বিজি না হয়ে ইজি ভাবে করবেন। কেননা বেশি ব্যস্ত হয়ে কোনো কাজ করিলে ঝামেলা হয়ে যেতে পারে। তাই আস্তে আস্তে এইসব কাজ করবেন, নতুবা গোসত কাটাকাটি করতে গিয়ে নিজের হাতও কেটে যেতে পারে।

বেড়াতে গেলেও খাবার স্যালাইন সঙ্গে রাখুনঃ তুলনা মূলক ভাবে অন্য সব সময়ের চেয়ে কোরবানির ঈদে সবারই একটু-আধটু বেশি বেশি খাওয়া-দাওয়া হয়েই যায়! যার ফলে পেটের ভিতরে যে রেড সিগন্যাল দিতেই পারে, সেটা চক্ষু বন্দ করিয়াও বলতে পারা যায়। এই জন্যই তো বলছি, প্রত্যেকের সঙ্গে সঙ্গে সমাধানের উপায়ও রাখা চাই। যার উত্তম সমাধান হইলো, নিয়মিত খাবার স্যালাইন পান করা। তাই সবার জন্যই উন্নতমানের এ্যাডভাইস হলো ঈদের বাজারের সাথে সতর্কতা মূলক কয়েক প্যাকেট খাবার স্যালাইন রাখুন! কোথাও বেড়াতে গেলেও এটা ভুললে চলবে না কিন্তু।

এই বিভাগে আরো আছে

কার্টুন আইডিয়া 7407563551885727001

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

সঙ্গে থাকুন

জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক

নেটয়ার্ক

  • বিজ্ঞাপন

     vm

    আঁকা-আঁকি আহ্ববান

    আপনার আঁকা, মজার মজার লেখা, ছবি আঁকার কলা-কৌশল, শিল্পীর জীবনী, প্রবন্ধ, চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা অথবা প্রদর্শনীর সংবাদ টুনস ম্যাগে ছাপাতে চাইলে পাঠিয়ে দিন। আমাদের ইমেইল করুন- bangla@toonsmag.com এই ঠিকানায়।

    সহায়তা করুন

    item