সৌদিতে প্রকাশ্যে প্রথম চিত্র প্রদর্শনী

বিডি.টুনসম্যাগ.কম  ছবি : এএফপি ডেস্ক নিউজ : সৌদি আরবে প্রথম বারের মতো প্রকাশ্যে চিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছে। এ চিত্র গুলো স্থা...

বিডি.টুনসম্যাগ.কম
 ছবি : এএফপি

ডেস্ক নিউজ : সৌদি আরবে প্রথম বারের মতো প্রকাশ্যে চিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছে। এ চিত্র গুলো স্থান পেয়েছে রাজধানী রিয়াদের উন্মুক্ত স্থানের বিলবোর্ডগুলো। গত বুধবার বার্তা সংস্থা এএফপির খবরে এ কথা জানানো হয়।

খবরে আরো জানানো হয়, এ উদ্যোগের আয়োজক আল-আরাবিয়া আউটডোর নামের একটি বিজ্ঞাপনী সংস্থা। সংস্থাটির দাবি, এটি সৌদি আরবে জনসমক্ষে আয়োজিত প্রথম চিত্র প্রদর্শনী। রিয়াদের আলো ঝলমলে তাহলিয়া সড়কে গত সোমবার রাতে এই চিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়। প্রদর্শনী চলবে আগামী শনিবার পর্যন্ত।

আল-আরাবিয়া আউটডোরের উপপ্রধান নির্বাহী মোহাম্মদ আল-খেরেইজি বলেন, ‘এটি নতুন কিছু।’ তিনি বলেন, গ্যালারিতে ছোট আকারে কিছু প্রদর্শনী আগে হয়েছে। তবে প্রথমবারের মতো এ ধরনের একটি প্রদর্শনী উন্মুক্ত স্থানে হচ্ছে। সৌদি চিত্রশিল্পীদের আঁকা ৮০টি ছবি তিন হাজার ৪০০ বিলবোর্ডের মাধ্যমে প্রদর্শিত হচ্ছে। তিনি এ আয়োজনকে মধ্যপ্রাচ্যের সবচেয়ে বড় চিত্র প্রদর্শনী বলে মন্তব্য করেন।

‘স্টোরি’ শিরোনামে নিজের আঁকা ছবির পাশে দাঁড়িয়ে চিত্রশিল্পী মাজেদ সৌদ আল-মেফারেহ বলেন, ‘এখানকার সংস্কৃতি ও সমাজ শিল্পীকে উৎসাহিত করে না। এই সমাজে শিল্পী হওয়াটা ভীষণ কঠিন।’ তাঁর ছবিটি সৌদি জীবন ও ঐতিহ্যের মিশেলে এক বিমূর্ত কর্ম। ৩৮ বছর বয়সী মেফারেহ সৌদি প্রশাসনে চাকরি করেন। তবে দুই দশকেরও বেশি সময় ধরে তিনি শখের বসে ছবি আঁকেন। তাঁর মনে হয়, তাঁর মতো এই সমাজের কিছু মানুষ ছবি আঁকতে ও দেখতে পছন্দ করেন।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের চাকরিজীবী সুলতান আল-আদওয়ানি এসেছিলেন এক খাবারের দোকানে। পাশেই এই প্রদর্শনীর ছবি দেখে বেশ উচ্ছ্বাস প্রকাশ করলেন। বললেন, ঘরের ভেতরের প্রদর্শনীর চেয়ে এটাই বরং ভালো।

এই প্রদর্শনীর জন্য যখন ছবি জমা দেওয়ার আহ্বান জানানো হয়, তখন তিন হাজার ২০০টির মতো ছবি জমা পড়েছিল। এর বেশির ভাগই বিমূর্ত ছবি। এর কারণ এখানে ছবিতে মানুষের অবয়ব আঁকার ওপর নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। জমা পড়া ছবিগুলোর মধ্যে গ্রাম ও শহরের ল্যান্ডস্ক্যাপ, খেলাধুলা, পবিত্র কাবা শরিফের ছবি বেশি ছিল।

একটি ছবিতে সবুজ বর্ণের নারীদেহের উপস্থিতি আছে। দেখে মনে হয় মরুভূমিতে ক্যাকটাস বেড়ে উঠছে। প্রতীকী অর্থের এই ছবিটি অনেক শক্তিশালী। কারণ, দেশটিতে নারীর গাড়ি চালানোর অনুমতি আজও নেই। আর বাড়ির বাইরে নিজেকে ঢেকে রাখতে হয় বোরকার আড়ালে।

আহলাম নাসির আল-হারবি নামের ২৩ বছর বয়সী এক নারী চিত্রশিল্পী জানালেন, তিনি নারীদের জন্য স্থাপিত প্রিন্স নোরা বিনতে আবদুল রহমান বিশ্ববিদ্যালয়ের শিল্পকলার ছাত্রী। তাঁর মতে, দেশের চিত্রশিল্পীদের মধ্যে মাত্র ১০-২০ শতাংশ নারী। এই প্রদর্শনীর আয়োজন তাঁকে মুগ্ধ করেছে। এখানেই ঠাঁই পেয়েছে দুই বেদুইন নারীকে নিয়ে তাঁর আঁকা একটি ছবিও। কথা বলার সময় বোরকা পরিহিত এই শিল্পীর দুই চোখ ছাড়া আর কিছুই দেখার উপায় ছিল না।

এই বিভাগে আরো আছে

সংবাদ 3164102005867371842

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

সঙ্গে থাকুন

জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক

নেটয়ার্ক

  • আঁকা-আঁকি আহ্ববান

    আপনার আঁকা, মজার মজার লেখা, ছবি আঁকার কলা-কৌশল, শিল্পীর জীবনী, প্রবন্ধ, চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা অথবা প্রদর্শনীর সংবাদ টুনস ম্যাগে ছাপাতে চাইলে পাঠিয়ে দিন। আমাদের ইমেইল করুন- bangla@toonsmag.com এই ঠিকানায়।

    সহায়তা করুন

    item