এই শীতে প্রয়োজনীয় কিছু টিপস

রুপম আহমেদ মঈন বিডি.টুনসম্যাগ.কম শীত এলেই দেখা যায় এক শ্রেণীর মানুষ আছেন যারা পানি ব্যাবহার করা তো দূরের কথা পানির কাছে যেতেই ভয় পান! আব...

রুপম আহমেদ মঈন
বিডি.টুনসম্যাগ.কম

শীত এলেই দেখা যায় এক শ্রেণীর মানুষ আছেন যারা পানি ব্যাবহার করা তো দূরের কথা পানির কাছে যেতেই ভয় পান! আবার কেউ কেউ সারাদিন গায়ে শীতের পোশাকসহ  কম্বল পেচিয়ে নিয়েও শীতে কাঁপাকাঁপি করেন! তাদের জন্য এই শীতে প্রয়োজনীয় কিছু টিপস। 



জেনে নিন কি কি উপায় অবলম্বন করে এই শীতে একটু আরামে দিন যাপন করতে পারবেন-
গোসল
শীতের দিনে শীত কাতর এবং পানি চোরাদের কাছে সবচেয়ে চ্যালেঞ্জের বিষয় হচ্ছে গোসল! কেউ কেউ আছেন যারা ১০/১৫ দিনের মধ্যে একদিন গোসল করেন তাও আবার নিজের শরীরের গন্ধ নিজে সইতে না পেরে। এছাড়া কেউ কেউ ঠান্ডা পানিতে হাত দিয়েই অজ্ঞান হয়ে পড়েন! কেউ কেউ আবার গরম পানিতেও গোসল করতে শীত অনুভব করেন!
এসব সমস্যা সমাধানের জন্য যেটা করা যেতে পারে সেটা হলো, অজ্ঞান করে গোসল!
ডাঃ যেমন রোগীকে অপারেশন করার আগে অজ্ঞান করেন যাতে শরীর কেটে সেলাই করে দিলেও রোগী একটুও টের পায়না, তেমন অজ্ঞান করে গোসল করালে একটুও শীত লাগবে না! এতে এক দিকে যেমন শীতের হাত থেকে বাঁচা যাবে অন্যদিকে অনেক ভালো একটা গোসলও হবে!


বাথরুম 
শীতের দিনে শীত কাতর আর পানি চোরাদের অন্যতম আরেকটি চ্যালেঞ্জের যায়গা হচ্ছে বাথরুম! বিশেষ করে ঘন ঘন যারা বাথরুমে যান তাদের জন্য! প্রতিবার বাথরুমে যাওয়া মানেই হাতের মোজা পায়ের মোজাসহ আরো কিছু শীতের পোশাক খুলে বাথরুমে যেতে হয়। প্রতিবার বাথরুমে যাওয়া মানেই প্রতিবার শীত লেগে কাঁপাকাঁপি করা, এ ভয়ে কেউ কেউ সারা দিন-রাত পানিই খান না। আবার খাইলেও একদমই কম যাতে দিনে একবার বাথরুমে গেলেই কাজ হয়ে যায়। 
এই সমস্যার মধ্যে যারা ভুগছেন তারা যা করতে পারেন..
বাচ্চাদের বেবী ডায়পারের মতো আপনিও বড় ডায়পার ব্যাবহার করতে পারেন। এতে আপনি অন্তত ১২ ঘন্টা পুরোপুরি নিরাপদ থাকতে পারবেন। কেননা বড় ডায়পার মানে আরও অধিক শোষণ ক্ষমতা। এতে যেমন বারবার বাথরুমে যেতে হবে না তেমনি ইচ্ছে মতো পানিও খেতে পারবেন।



বিছানা 
শীতের দিনে ব্যাচেলরদের জন্য একটি চ্যালেঞ্জের যায়গা হচ্ছে সিঙ্গেল বেডের বিছানা।
সারাদিন পড়াশোনা বা অফিসের কাজে ব্যস্ত থাকার কারণে লেপ তোষক কাথা কম্বল কিছুই রোদে দিয়ে একটু গরম করার সুযোগ হয়না। ক্লান্ত শরীরে রাতে ঘুমাতে গিয়ে মনে হয় বিছানাটা যেন আস্ত এক বরফের ময়দান। 
এ সমস্যা সমাধানের জন্য যে কাজটি করা যেতে পারে,
সারাদিন পড়াশোনা বা অফিস করে রুমে এসে বেডের সব কাথা কম্বল লেপ তোষক ইস্ত্রি করে গরম করতে পারেন! এবং সাথে বেডের নিচে একটা হিটার জালিয়ে ঘুমাতে পারেন। এতে ঘুমও যেমন ভালো হবে তেমনি কাথা কম্বল লেপ তোষকও রোদে দেয়ার ঝামেলা থাকবে না!
রুপম আহমেদ মঈন
সিরাজগঞ্জ সরকারি কলেজ





এই বিভাগে আরো আছে

শীত সংখ্যা 8258831743082405635

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

সঙ্গে থাকুন

জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক

নেটয়ার্ক

  • আঁকা-আঁকি আহ্ববান

    আপনার আঁকা, মজার মজার লেখা, ছবি আঁকার কলা-কৌশল, শিল্পীর জীবনী, প্রবন্ধ, চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা অথবা প্রদর্শনীর সংবাদ টুনস ম্যাগে ছাপাতে চাইলে পাঠিয়ে দিন। আমাদের ইমেইল করুন- bangla@toonsmag.com এই ঠিকানায়।

    সহায়তা করুন

    item