বর্তমানে সবচেয়ে শক্তিশালী অস্ত্র হলো কার্টুন : আরিফুর রহমান

বিডি.টুনসম্যাগ.কম নরওয়েতে অনুষ্ঠিত নিজ কার্টুন প্রদর্শনীতে কার্টুনিস্ট আরিফুর রহমান / ফটো: নরওয়েজিয়ান টিভি এন আর ক  আন্তর্জাতিক প্রসং...

বিডি.টুনসম্যাগ.কম
নরওয়েতে অনুষ্ঠিত নিজ কার্টুন প্রদর্শনীতে কার্টুনিস্ট আরিফুর রহমান / ফটো: নরওয়েজিয়ান টিভি এন আর ক 
আন্তর্জাতিক প্রসংশা ও খ্যাতি অর্জনকারী নরওয়ে প্রবাসী বাংলাদেশী কার্টুনিস্ট ও টুনস ম্যাগ প্রকাশক আরিফুর রহমান। যথাক্রমে সিনেমা পরিচালনা, সিনেমা নির্মাতা ও শিক্ষকতা পেশায় যুক্ত থাকলেও নিজেকে কার্টুনিস্ট হিসেবে পরিচয় দিতে গর্ববোধ করেন বলে জানিয়েছেন তিনি। প্রতিভাবান এই তরুণ কার্টুনিস্ট ২০০৮ সালে নির্বাচন কমিশনের নির্বাচন সংক্রান্ত বিধিমালা সংক্রান্ত পোস্টার ও টিভি বিজ্ঞাপনের জন্য কার্টুন একে প্রসংশিত হয়েছিলেন দর্শক মহলে। কার্টুন নিয়ে তার ভাবনা, তার ব্যক্তিগত জীবন ও টুনস ম্যাগ নিয়ে তার ভবিষ্যত পরিকল্পনাসহ নানান বিষয়ে নেয়া সাক্ষাত্কার পাঠকদের জন্য উপস্থাপন করা হলো-

আপনি কার্টুন জগতে আসলেন কেন? শুরুটা কিভাবে?
উত্তর : ছেলে বেলা থেকে-ই আমার আঁকা আঁকির প্রতি খুব ঝোক ছিল। পাঠ্য বইয়ের গল্প কবিতা'র চেয়ে হাশেম খানের করা অলংকরণ আমাকে বেশি আকৃষ্ট করত। সেই ভালো লাগা থেকেই আর হাশেম খানের আঁকা প্রচ্ছদের উপর হাত ঘুরাতে ঘুরাতে আঁকা আঁকির শুরু।  
কার্টুনের বেলায় কার্টুনিস্ট মামুন হোসাইনের কার্টুন আঁকার ধরনটা আমাকে অনেক আকৃষ্ট করত। মামুন হোসাইনের আঁকার ধরনটা দেখে উপলব্ধি করেছিলাম কার্টুন আঁকাটা অনেক সহজ ও অনেক মজার। মামুন হোসাইনের কাজ দেখে অনুপ্রানিত হয়ে-ই কার্টুন আঁকা শুরু করি। এরপর আমার কার্টুন যখন বিচ্চুতে ছাপা হয়েছিল সেটা থেকে অনেক অনুপ্রেরণা আর আত্মবিশ্বাস পেয়েছিলাম। টিআইবি ও ডেইলি স্টার থেকে দুর্নীতি বিরোধী কার্টুন একে পুরস্কার পাওয়ার পর সেই সময়ে প্রথম আলোর আলপিনের সম্পাদক সুমন্ত আসলামের হাত ধরে কার্টুনিস্ট হিসাবে আমার আত্মপ্রকাশ।  

কার্টুন আঁকার পাশাপাশি আর কি করেন? আপনার পারিবারিক জীবন সম্পর্কে কিছু বলুন? 
উত্তর : কার্টুন আঁকার পাশাপাশি অনেক কিছুই করা হয় যেমন- পেইন্টিং করি, এনিমেশন নিয়ে কাজ করি, শর্ট ফিল্ম বানাই, নরওয়েজিয়ান এক আর্টিস্ট এর উপরে ৩০ মিনিটের একটা ডকুমেন্টরি ফিল্ম প্রজেক্ট নিয়ে কাজ করছি, একটি স্কুলে ছোটদের কার্টুন আঁকা শেখাই, একটা সেচ্ছাসেবক গ্রুপের দলনেতা হিসাবে কাজ করছি, সম্প্রতি এখানে একটা কলেজ থেকে ক্রিয়েটিভ আর্ট নিয়ে লেখা পড়া শেষ করলাম। পাশাপাশি নরওয়েজিয়ান ভাষাও শিখছি। 'টুনস ম্যাগ' নিয়ে তো আছি-ই সেই সাথে ofnf.me নামে একটা সোশ্যাল নেটওয়ার্ক প্রজেক্ট নিয়ে কাজ করছি। 
গত ২০১২'র এপ্রিলে আমার 'মা' মারা গেছেন, ছোট বোন আছে, সে দেশে থাকে। তার স্বামীর সন্তান নিয়ে। নরওয়েতে পারিবারিক জীবন বলতে আমি একা থাকি। তবে সম্পর্কে আবদ্ধ।  

এ পর্যন্ত আপনার আঁকা কার্টুন গুলো সম্পর্কে কিছু বলুন?
উত্তর: একটা সময় পাঠক হিসাবে ফান ম্যাগাজিন গুলোর জন্য ফ্রি কার্টুন আঁকতাম, ফান ম্যাগাজিন এর প্রদায়ক হিসাবে, ২০০৮ সালে নির্বাচন কমিশনের নির্বাচন সংক্রান্ত বিধিমালা সংক্রান্ত পোস্টার ও টিভি বিজ্ঞাপনের জন্য কার্টুন একেছি, এরপর কল্প নাম একটা অরগানায়জেশনের হয়ে চ্যানেল আই এর জন্য বিবেক নামে ১৯০ পর্বের ১ মিনিটের ধারাবাহিকের জন্য কার্টুন একেছি, তবে এর পর আমার মনের মত কাজ করা হয় নাই, তবে চেষ্টা করে যাচ্ছি কার্টুন নিয়ে কিছু করতে। 

কি ধরনের কার্টুন আপনার পছন্দ?
উত্তর: আমি আসলে সব ধরনের কার্টুন-ই আঁকি। যেমন- রম্য, রাজনৈতিক। তবে রাজনৈতিক ও সামাজিক অসঙ্গতি নিয়ে কার্টুন আঁকতে ভালো লাগে।
ডেইলি স্টার আয়োজিত দুর্নীতি বিরোধী কার্টুন প্রতিযোগিতার বিজয়ী আরিফুর রহমান প্রথম পুরস্কার গ্রহণ গ্রহণ করছেন (৯ আগস্ট ২০০৭)

একজন কার্টুনিস্ট হিসেবে কি কি গুন থাকা প্রয়োজন বলে আপনি মনে করেন?
উত্তর: আমি মনে করি একজন কার্টুনিস্টকে প্রথমে সত্যবাদী ও নীতিবান হওয়া জরুরি। এছাড়া কার্টুন আঁকার ক্ষেত্রে নিরপেক্ষ দৃষ্টিকোণ থেকে কার্টুন আঁকা উচিত।

ভবিষ্যত নিয়ে আপনার ভাবনা কি? নিজেকে কোথায় দেখতে চান?
উত্তর: ভবিষতে কার্টুন এনিমেশন ফিল্ম নিয়ে কাজ করার ইচ্ছে আছে, সেই সাথে আর্ট এর সব গুলো মাধ্যমে কাজ করার ইচ্ছে আছে। বর্তমানের মত ভবিষতেও আমার ভাবনা 'টুনস ম্যাগ'কে নিয়ে। টুনস ম্যাগ'কে বিশ্বের বহুল ভাষায় প্রকাশিত ও জনপ্রিয় অনলাইন ম্যাগাজিন হিসাবে প্রতিষ্ঠা করা। এবং বর্তমানের মত ভবিষতেও একজন সহজ সরল পরপকারী ভালো মানুষ হিসাবে থাকতে চাই।  

কার্টুনকে ঘিরে আপনার মজার কোনো অভিজ্ঞতা-
উত্তর : কার্টুন নিয়ে মজার অভিজ্ঞতা; বিচ্ছুতে যেদিন আমার প্রথম কার্টুন ছাপা হয়েছিল সেদিন, আমি আনন্দে আত্মহারা হয়েছিলাম। বিচ্ছু হাতে নিয়ে রাস্তায় রাস্তায় ঘুরেছিলাম আর চেনা অচেনা সবাইকে দেখিয়েছিলাম। বন্ধুদের বাড়ি বাড়ি গিয়েও দেখিয়ে এসেছিলাম। রাতে আনন্দে আমি ঘুমোতে পারিনি। বলতে গেলে এটাই ছিল কার্টুন নিয়ে আমার প্রথম মজার ঘটনা। 

কার্টুন মানুষকে সচেতন করতে কি রকম ভুমিকা রাখছে বলে আপনি মনে করেন?
উত্তর: আমি মনেকরি বর্তমানে সবচেয়ে শক্তিশালী অস্ত্র হলো কার্টুন। আর মানুষকে সচেতন করতে কার্টুনের ভুমিকা বা প্রভাব অপরিসীম। কার্টুনের ভাষা পাঠককে খুব সহজেই নাড়া দেয়, আর সেই কারণেই জাতীয় দৈনিকগুলোতে কার্টুনকে খুব গুরুত্বের সহকারে প্রকাশিত হয়। আমি মনেকরি, কার্টুনের ভাষা মানুষকে খুব সহজে আকৃষ্ট করে ও খুব বেশি প্রভাবিত করে।

নতুন কার্টুনিস্টদের জন্য আপনার পরামর্শ? 
উত্তর : কার্টুনিস্ট দের নিরপেক্ষ হওয়া উচিত। আজ কাল অনেক কার্টুনিস্টকে দেখা যায় যারা বিশেষ কোনো মহলকে খুশি করতে, দলের/মহলের পক্ষে কার্টুন করে থাকে, এটা খুব খারাপ একটা বিষয়। নতুনদের উদ্দেশ্যে একটা পরামর্শ দিতে চাই! সেটা হলো- নিরপেক্ষ দৃষ্টিকোন থেকে কার্টুন আঁকুন। আপনার আঁকায় প্রকাশ করুন আপনার স্বাধীনতা। 

টুনস ম্যাগ প্রতিষ্ঠার আইডিয়া আপনার মাথায় ঢুকলো কিভাবে? এবং তা বাস্তবায়ন করলেন কিভাবে?
উত্তর: আমার কার্টুন নিয়ে সমস্যা হওয়ার কারণে আমাকে গ্রেফতার ও প্রথম আলোর আলপিন'কে নিষিদ্ধ ঘোষণার পর আমি খুব কষ্ট পেয়েছিলাম। জেলে থাকাকালীন অবস্থায় সিদ্ধান্ত নেই, আমি যদি কখনো মুক্ত হই তাহলে আমি একটা কার্টুন ম্যাগাজিন প্রতিষ্ঠা করব, সেটাকে কেউ নিষিদ্ধ করতে পারবে না, এবং সেটি পৃথিবীর বিভিন্ন ভাষায় প্রকাশ করব। জেল থেকে মুক্তি পাওয়ার পর একদিন এই ব্যাপারে চারুকলায় কার্টুনিস্ট সুমন ওয়াহিদ ও কার্টুনিস্ট সাদাত-এর সাথে কথা বলি। তাদের সাথে কথা বলে যেটা বুঝতে পারি, এটা খুব খরচ সাধ্য ব্যাপার, যা আমার পক্ষে নিউজ প্রিন্টের কাগজে চালু করা সম্ভব না। একদিন কার্টুনিস্ট মামুন হোসাইনের সাথেও এ ব্যাপারে কথা বলেছিলাম।  তার কাছ থেকেও একই রকমের কথা শুনে মনে হয়েছিল, কাগজের ম্যাগাজিন করা আমার সামর্থের বাইরে।  
এরপর খরচ ও আমার সামর্থের কথা চিন্তা করে অনলাইন ভিত্তিক কার্টুন ম্যাগাজিন করার সিদ্ধান্ত নেই। ইংরেজি কার্টুন শব্দের বহুবচন কার্টুনস শব্দের শেষের চার অক্ষর টুনস  ও ম্যাগাজিনের প্রথম তিন অক্ষর ম্যাগ এর সমন্নয়ে নতুন শব্দ টুনস ম্যাগ গঠন করা হয়, এবং কার্টুন ম্যাগাজিনের নাম টুনস ম্যাগ করা হয়।  প্রথম দিকে অর্থনৈতিক সমস্যাসহ কারিগরী সমস্যায়ও পড়তে হয়েছে বহুবার। এখন সেই সমস্যা গুলো অনেকখানি দূর করে ফেলেছি একাই। 
২০০৮ সালে টিআইবি আয়োজিত দুর্নীতি বিরোধী কার্টুন প্রতিযোগিতায় গ্রুপ 'বি' থেকে প্রথম আরিফুর রহমান'এর কার্টুন। 

টুনস ম্যাগ নিয়ে আগামীতে কি ভাবছেন?
উত্তর: টুনস ম্যাগ নিয়ে আসলে অনেক কিছুই ভাবছি। যেমন- আগামী ৫ বছরের মধ্যে টুনস ম্যাগের ১০ ভাষায় পূর্ণাঙ্গ ভার্সন দাড় করানো। উল্লেখ্য : বর্তমানে ইংরেজি, বাংলা, নরওয়েজিয়ান ও আরবি ভাষায় প্রকাশিত হচ্ছে। টুনস ম্যাগের একটি অনলাইন ভিত্তিক টিভি রয়েছে, যেখানে ২৪ ঘন্টা কার্টুন ও কার্টুন সংক্রান্ত অনুষ্ঠান প্রচার করা হয়। ফার্সি ভার্সনের কাজ নির্মানাধীন রয়েছে, চীনা ও হিন্দি ভার্সনের কাজ আগামী ২ বছরের মধ্যে কাজ শুরু করার পরিকল্পনা রয়েছে।

আপনি একজন কার্টুনিস্ট, চিত্রশিল্পী, প্রকাশক ও ফিল্ম নির্মাতা, এগুলোর মধ্যে নিজেকে কোন পরিচয় দিতে স্বাচ্ছন্দ বোধ করেন?
উত্তর: কার্টুনিস্ট, চিত্রশিল্পী, প্রকাশক ও ফিল্ম নির্মাতা, এগুলোর মধ্যে নিজেকে কার্টুনিস্ট হিসাবে পরিচয় দিতে গর্ববোধ করি।  

শেষ প্রশ্ন, আপনি তো দেশের বাইরে অবস্থান করছেন! আপনার প্রবাসী জীবন সম্পর্কে কিছু বলুন-
উত্তর: আমার প্রবাসী জীবন অনেক ব্যাস্ততার। সব কিছু নিয়ে আসলে এতটাই ব্যাস্ত যে, অনেক জরুরি কাজ করি করি করেও সম্পন্ন করার সময় পাইনা। মাঝে মাঝে মনে হয়,  আসলে আমার কাজের পরিমানের চেয়ে সময়ের পরিমানটা অনেক কম। 

এই বিভাগে আরো আছে

সাক্ষাৎকার 5513809853081870411

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

সঙ্গে থাকুন

জনপ্রিয়

সাম্প্রতিক

নেটয়ার্ক

  • আঁকা-আঁকি আহ্ববান

    আপনার আঁকা, মজার মজার লেখা, ছবি আঁকার কলা-কৌশল, শিল্পীর জীবনী, প্রবন্ধ, চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা অথবা প্রদর্শনীর সংবাদ টুনস ম্যাগে ছাপাতে চাইলে পাঠিয়ে দিন। আমাদের ইমেইল করুন- bangla@toonsmag.com এই ঠিকানায়।

    সহায়তা করুন

    item